বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিকাশ এর উদ্যোগে অ্যান্টি-মানি লন্ডারিং ও কমব্যাটিং ফাইন্যান্সিং অব টেরোরিজম সংক্রান্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত

এপ্রিল ২৫, ২০১৫

বাংলাদেশ ব্যাংকের সহযোগিতায় বিকাশ লিমিটেড তার কর্মকর্তাদের জন্য অ্যান্টি-মানি লন্ডারিং ও কমব্যাটিং ফাইন্যান্সিং অব টেরোরিজম (এএমএল অ্যান্ড সিএফটি) সংক্রান্ত একটি দিন-ব্যাপী কর্মশালার আয়োজন করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এবং ডেপুটি হেড অব বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট এম মাহফুজুর রহমান  প্রধান অতিথি হিসেবে কর্মশালাটির উদ্ভোধন করেন।

ঢাকার গুলশানে অবস্থিত লং বিচ হোটেলে অনুষ্ঠিত এই কর্মশালায় বিকাশ এর ৬৫ জন কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন।

কর্মশালায় এএমএল অ্যান্ড সিএফটি আইনের বিভিন্ন দিক এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলিতে এর প্রয়োগ নিয়ে মোট ৪ টি প্রেজেন্টেশন দেওয়া হয়।    

কর্মশালায় বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সার্ভিস বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর প্রজ্ঞা পারমিতা সাহা ‘মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসঃ অ্যান ওভারভিউ অন পলিসি অ্যান্ড কারেন্ট সিনারিও’ সংক্রান্ত একটি টপিক উপস্থাপন করেন। অন্যদিকে বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের ডেপুটি ডিরেক্টর এমডি রাশেদ ‘ সিগনিফিক্যান্স অ্যান্ড অ্যাপ্লিকিবিলিটি অব এএমএল অ্যান্ড সিএফটি রিলেটেড ল’স, রুলস এবং রেগুলেশনস ইন এমএফএস’ সংক্রান্ত একটি টপিক উপস্থাপন করেন।

বিকাশ এর চীফ এক্সটারনাল অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার অ্যান্ড চীফ অ্যান্টি মানি লন্ডারিং অ্যান্ড কমপ্লায়েন্স অফিসার মেজর জেনারেল (অবঃ) শেখ এমডি মনিরুল ইসলাম তার ‘মেকিং এমএফেস এএমএল অ্যান্ড সিএফটি কমপ্লায়েন্ট- এ বিকাশ পারসপেক্টিভ’  সংক্রান্ত একটি টপিক উপস্থাপনার মাধ্যমে এএমএল অ্যান্ড সিএফটি সংক্রান্ত নিয়ম মেনে চলার ক্ষেত্রে বিকাশ এর কার্যক্রমের উপর আলোকপাত করেন।

বিকাশ এর হেড অব কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স ক্যাপ্টেন (অবঃ বাংলাদেশ নেভী) সাবের শরীফ ‘প্রিভেন্টিং এমএল অ্যান্ড টিএফ-এ বিকাশ পারসপেক্টিভ’ সংক্রান্ত একটি টপিক উপস্থাপন করেন।  

এম মাহফুজুর রহমান তার বক্তব্যে কর্মশালা আয়োজনের জন্য বিকাশ এর প্রশংসা করেন। তিনি বলেন এই ধরনের কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের সন্দেহজনক লেনদেন পর্যবেক্ষণ, চিহ্নিত এবং রিপোর্ট করার ক্ষেত্রে এএমএল অ্যান্ড সিএফটি বাস্তবায়নের গুরুত্ব সম্পর্কে অনুধাবন করতে সহায়তা করবে।

 

বিকাশ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বলেন, বিকাশ সেবা প্রদানে কমপ্লায়েন্ট জোরদারের   লক্ষে বিকাশ প্রায় ১০০ জনের মত কমপ্লায়েন্স অফিসার নিয়োগ দিয়েছে যারা মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, বিকাশ এর সকল কর্মীকেই ধীরে ধীরে এএমএল অ্যান্ড সিএফটি সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ প্রদান করবে।

২০১১ সালে কার্যক্রম শুরু করা বিকাশ দেশের বিশাল জনগোষ্ঠীকে পূর্নাংগ মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস প্রদান করে চলেছে। বিকাশ- ব্র্যাক ব্যাংক, ইউএস ভিত্তিক মানি ইন মোশন, ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের অন্তর্গত প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফিনান্স কর্পোরেশন এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এর যৌথ মালিকানাধীন একটি প্রতিষ্ঠান।