বইমেলায় বিকাশ পেমেন্টে ১০ শতাংশ ক্যাশব্যাক

ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২০ ঢাকা

বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে বইমেলা-২০২০ উপলক্ষ্যে বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও গ্রাহকদের জন্য বিকাশ পেমেন্টে থাকছে ১০ শতাংশ ক্যাশব্যাক। 

বিকাশ অ্যাপে কিউআর কোড স্ক্যান করে, *২৪৭# ডায়াল করে অথবা পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে বিকাশ পেমেন্ট করে ক্যাশব্যাক অফার নেয়া যাবে। গত ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া মাসব্যাপী এই বইমেলায় বিকাশ পেমেন্টে তাৎক্ষণিক ক্যাশব্যাক পাবেন গ্রাহকরা। মেলা চলাকালীন একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা ক্যাশব্যাক পেতে পারেন। 

এবারের বই মেলায় প্রথমবারের মত  সুবিধা বঞ্চিত শিশুদেরকেও বইমেলার আনন্দে মাতিয়ে তুলতে বই প্রদান কর্মসূচী গ্রহণ করেছে বিকাশ । অভিযাত্রিক ফাউন্ডেশনের পরিচালনায় রায়ের বাজার ও মিরপুর স্কুলসহ ঢাকা, কুমিল্লা, বরিশালের বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং স্থানীয়  লাইব্রেরী, মসজিদ সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ৫০০০ বই দেবে বিকাশ।

বিকাশের সাথে মেলায় আসা পাঠক-দর্শনার্থীরাও অংশ নিতে পারেন এই বই প্রদান কর্মসূচীতে। এ জন্য মেলা প্রাঙ্গনেই থাকছে বই দেয়ার ব্যবস্থা। যে কেউ তার পছন্দ অনুসারে নতুন বা পুরাতন বই বই প্রদান বুথে এসে দিতে পারবেন। প্রতি সপ্তাহে অভিযাত্রিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের হাতে মেলা প্রাঙ্গনে এসব বই তুলে দেয়া হবে।

এবারের বই মেলায় প্রায় ৯০ শতাংশ স্টলে বিকাশ পেমেন্ট করা যাচ্ছে। মেলা প্রাঙ্গনে আছে বিকাশের বুথ, যাদের বিকাশ অ্যাকাউন্ট নেই, তারা জাতীয় পরিচয় পত্র নিয়ে এসে বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারছেন। গ্রাহকদের সুবিধার্থে বইমেলা প্রাঙ্গনেই আছে ক্যাশইন ক্যাশআউটের ব্যবস্থাও। 

মেলার পাঠক-লেখক-ক্রেতা-দর্শনার্থীদের বিশ্রামের জন্য বিকাশের সৌজন্যে আছে বসার ব্যবস্থা। আছে বিনামূল্যে নিরাপদ পানি ও চা-কফির ব্যবস্থাও।

ব্র্যাক ব্যাংক, যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক মানি ইন মোশন, বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের অর্ন্তগত ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল এর যৌথ মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান বিকাশ, ২০১১ সাল থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়ন্ত্রিত পেমেন্ট সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস দিয়ে আসছে।