ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা জনগোষ্ঠির আর্থিক অর্ন্তভুক্তির লক্ষ্যে বিকাশ এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল -এর মধ্যে কৌশলগত অংশীদারিত্ব চুক্তি স্বাক্ষর

এপ্রিল ২৬, ২০১৮


ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা জনগোষ্ঠির আর্থিক অর্ন্তভুক্তির লক্ষ্যে বিকাশ এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল -এর মধ্যে কৌশলগত অংশীদারিত্ব চুক্তি স্বাক্ষর

 

বাংলাদেশের ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা বিশাল জনগোষ্ঠির আর্থিক অর্ন্তভুক্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সম্প্রতি দেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশ লিমিটেড (বিকাশ) এবং আর্ন্তজাতিক পেমেন্ট প্রতিষ্ঠান আলীপে এর অপারেটর কোম্পানী অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল সার্ভিস গ্রুপ (অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল) কৌশলগত অংশীদারিত্ব চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে। এর আওতায় প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বাড়িয়ে বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য আরো সুবিধাজনক এবং নিরাপদ সেবা নিশ্চিত করতে বিকাশে বিনিয়োগ করবে অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল।

২০১০ সালে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড এবং মানি ইন মোশন এলএলসি এর যৌথ অংশীদারিত্বে যাত্রা শুরু করা বিকাশের বর্তমানে সারাদেশে এক লাখ ৮০ হাজার এজেন্ট এবং তিনকোটি নিবন্ধিত গ্রাহক রয়েছে।

বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বলেন, এই বিনিয়োগের সাথে সাথে হাজারো প্রকৌশলীর পরিশ্রমে তৈরি অনন্য পেমেন্ট প্রযুক্তি নিয়ে এসেছে আলীপে। চীনা অর্থনীতিতে সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক পরিবর্তন আনা এই প্রযুক্তি ব্যবহারের অভিজ্ঞতাও যুক্ত হবে আমাদের সাথে। ১৬ কোটি মানুষ এবং দ্রুত অগ্রসরমান অর্থনীতির বাংলাদেশে তাই বিকাশের জন্য যথোপযুক্ত অংশীদার অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল।এই বিনিয়োগ বিকাশের জন্য আরো নতুন সুযোগ নিয়ে আসবে।পাশাপাশি এটি বাংলাদেশের বাজারে বৃহৎ আর্ন্তজাতিক প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগ আস্থার প্রমাণ। 

অ্যান্ট ফিনান্সিয়ালের এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার এরিক জিং বলেন, অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল এবং বিকাশের লক্ষ্য অভিন্ন। একারণেই বাংলাদেশের সকলের জন্য আমরা সমান সুযোগ আনতে চাই। কৌশলগত অংশীদারদের সাথে সারা পৃথিবীর ৮০ কোটি মানুষকে গত একদশক ধরে সেবা দেওয়ার আমাদের যে অভিজ্ঞতা তা সহজেই গ্রহণ করতে পারবে বিকাশ। বাংলাদেশের বড় জনগোষ্ঠিকে সফলতার সাথে ব্যাংকিং সেবার আওতায় নিয়ে আসা বিকাশের মত প্রতিষ্ঠানে আমরা আমাদের প্রযুক্তিগত অভিজ্ঞতা  ভাগ করে নিতে অতি আগ্রহী। এটা অ্যান্ট ফিনান্সিয়ালের বৈশ্বিক কৌশল ও বটে।বিকাশ পরিচালিত হচ্ছে খুব চৌকস একটি ব্যবস্থাপনা দলের তত্বাবধানে এবং এই প্রতিষ্ঠানটির বাংলাদেশের বাজার সম্পর্কে খুব ভালো জ্ঞান রয়েছে, রয়েছে কার্য সম্পাদন সক্ষমতাও। ব্যবসায়িক লক্ষ্য প্রয়োগেও অসাধারণ প্রতিষ্ঠান বিকাশ। বিকাশের সাথে যৌথ অংশীদারিত্বের মাধ্যমে স্থানীয় সাধারণ মানুষ এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের প্রয়োজন পূরণে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও অর্ন্তভুক্তিমূলক আর্থিক সেবা দেওয়ার ব্যাপারে আমরা আত্মবিশ্বাসী।

ব্র্যাক ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক সেলিম আর এফ হোসেন বলেন, ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা কোটি বাংলাদেশীর দোরগোড়ায় ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দেয়ার প্রতিষ্ঠান বিকাশ, অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল-এর সাথে সম্পাদিত এই মাইলফলক চুক্তি থেকে আরো বেশি লাভবান হবে। এবং বাংলাদেশের কোটি মানুষের জীবনে বদলাতে এবং ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে আরো দূঢ়তার সাথে তাদের কার্যক্রম সম্পাদন করতে পারবে। 

২০১৭ সালের ফরচুন চেঞ্জ দ্যা ওয়ার্ল্ড তালিকায় বিকাশ এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল দুটো প্রতিষ্ঠানই স্থান করে নিয়েছিল । সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তন যেসব প্রতিষ্ঠানে বাণিজ্য কৌশলের অংশ তাদেরকেই এই সম্মাননা দেয় ফরচুন।

ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন এবং বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন যথাক্রমে ২০১৩ ও ২০১৪ সাল থেকে এই প্রতিষ্ঠানের শেয়ারহোল্ডার।

বিকাশ সম্পর্কে:

ফিচার ফোনের মাধ্যমে বাংলাদেশের ব্যাংকিং সেবার বাইরে থাকা এবং সীমিত ব্যাংকিং সেবার আওতায় থাকা সাধারণ মানুষের জন্য সীমিত অর্থ সংরক্ষণ, টাকা পাঠানো এবং পেমেন্ট করার সুবিধাজনক এবং নিরাপদ সেবা দেয় বিকাশ।২০১০ সালে বাংলাদেশে ব্যাংক থেকে লাইসেন্স প্রাপ্ত বিকাশ ব্র্যাক ব্যাংকের একটি সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান, আরো ১৫টি ব্যাংকের সাথে যাদের অপারেশনাল সর্ম্পৃক্ততা রয়েছে। সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তনের সামাজিক এজেন্টা এবং টেকসই ব্যবসায়িক লক্ষ্য নিয়ে ২০১১ সালে যাত্রা শুরু করা বিকাশের বর্তমানে নিবন্ধিত গ্রাহক সংখ্যা তিন কোটি। নিয়ন্ত্রিত মোবাইল আর্থিক সেবার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য বিকাশ এখন বাংলাদেশের প্রতি পরিবারের একটি অংশে পরিণত হয়েছে।

আলীপে সম্পর্কে:

আলীপে, অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল সার্ভিস গ্রুপ পরিচালিত বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় থার্ড-পার্টি পেমেন্ট প্ল্যাটফর্ম। ২০০৪ সালে যাত্রা শুরু হওয়া আলীপে এবং এর কৌশলগত অংশীদারদের বর্তমানে সারাবিশ্বে প্রায় ৮০ কোটি গ্রাহক রয়েছে। আলীপে অ্যাপ-এ ব্যবসায়িক বিভিন্ন ব্যবসায়িক তথ্য সন্নিবেশিত থাকে। অ্যাপটি অনলাইন এবং অফলাইন কেনাকাটায় পেমেন্ট প্রদানের পরিপূর্ণ সেবা। জীবনকে সহজ করতে আলীপে অ্যাপের মাধ্যমে বিস্তুৃত সম্পদ ব্যবস্থাপনা এবং অন্যান্য সেবাও সন্নিবেশিত হয়েছে। চীনে ৪ কোটি বিপনী বিতান আলীপে পেমেন্ট গ্রহণ করে। চীনের বাইরে ৪০টি দেশ ও অঞ্চলে ভ্রমনকারীদের বৈচিত্র্যময় সেবা দিচ্ছে আলীপে। 

ব্র্যাক ব্যাংক সম্পর্কে:

প্রথাগত ব্যাংকিং সেবা বাইরে থাকা ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের(এসএমই) ব্যাংকিং সেবার আওতায় আনার লক্ষ্য নিয়ে ২০০১ সালের জুলাই মাসে যাত্রা শুরু করে দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রাইভেট ব্যাংক ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড। বর্তমানে ব্যাংকটি  এক লক্ষ ৫০ হাজার এসএমই উদ্যোক্তাদের জামানত বিহীন ক্ষুদ্র ঋণ প্রদান করছে, যা এই খাতের মোট ঋণের ৬৫ শতাংশের ও বেশি। গত ১৬ বছরে এসএমই, খুচরা এবং পাইকারী ব্যবসায়িদের জন্য শক্তিশালী অর্থিক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হয়ে উঠেছে ব্যাংকটি। দেড় কোটি গ্রাহককে বৈচিত্র্যময় ব্যাংকিং পণ্য ও সেবা দিতে ব্র্যাংক ব্যাংকের বর্তমানে ১৮৬টি শাখা, ৪৪৭টি এটিএম, ৯০টি সিডিএম এবং ৪৫৭ এসএমই ইউনিট অফিস এবং ৬৫০০ কর্মীর বিশাল বাহিনী রয়েছে। “গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ব্যাংকিং অন ভ্যালুস” এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে সমাজ,পরিবেশ এবং অর্থনীতির ইতিবাচক পরিবর্তনে মূল্যবোধ ভিত্তিক ব্যাংকিং চর্চা করে আসছে ব্যাংকটি।